চাঁদেও তো দাগ আছে

আচ্ছা আর কার কার আমার মত মেলায় গিয়ে হারিয়ে যেতে ইচ্ছে করে ? না না আমি কখনো কোথাও হারিয়ে যায়নি.. অনেক না পাওয়ার ভীড়ে আমার এই হারিয়ে যাওয়ার ইচ্ছেটাও হারিয়ে গেছে … ও বলতে ভুলে গেছি আজ আমি কেন হঠাত মেলা নিয়ে লিখছি.. আমাদের পাড়ায় রোজ এইসময় মেলা হয় … এবারেও হচ্ছে.. বাড়ির পাশে মেলা, সেখানে রোজ বিকেলে নিয়ম করে না গেলে নিজেকে কেমন অপরাধী মনে হয় … তাই রোজ যাই  চিকেন রোল, পাপড়ি চাট , ফুচকা ,ঘুগনি, আর আইস ক্রিম খেতে… পাড়ার সবাই যখন দেখায়  তারা আশ্চর্য সব জিনিস কিনেছে এই মেলা থেকে.. নিজের উপর খুব রাগ হয় আচ্ছা আমি কি অন্ধ.. কখনো কি ফুচকা, চিকেন রোল থেকে চোখ তুলে তাকাতে পারব না .. এত বছরে একটা আশ্চর্য কিছু চোখে পড়ল না আমার কেনার মত… কিন্তু এবার মেলায় গিয়ে দিদির একটা গাছ টাইপের দেখতে শো-পিস পছন্দ হয়.. এইটা ওই আশ্চর্য টাইপের কাছাকাছি কিছু একটা  ভেবে খুব বার্গেনিং শুরু করি (কারণ ওটা রিচুয়াল) দোকানদারের সাথে .. ১৬০ এর জিনিস ১২০ তে নামাই..জিনিস টা  প্যাক করতে করতে দোকানদার এক গাল হেসে  বলে, “খুব ভালো জিনিস পেয়ে গেলেন  এত কম দামে..সারা জীবনেও এই জিনিসের কিছু হবে না ” .এক রাশ ভালোলাগা নিয়ে বাড়িতে এসে দেখি জিনিসটা থার্মোকলের আর পেছন টা অল্প ভাঙ্গা… এ মা.. তখন যে অত করে দেখলাম চোখে পড়ল না তো.. সবাই বলল খুব ঠকে গেছি …IMG_20140604_215920খুউব সাবধানে রাখতে হছে আমার এত দিনের অপেক্ষার পর পাওয়া আশ্চয জিনিসটাকে ..তাতে কি? কেউ ঠিকই বলিছিল “চাঁদেও তো দাগ আছে”…

Comments

Leave a Reply